Chittagong Tribune

Neutral coverage and incisive analysis.

বনানীর এফ আর টাওয়ার নির্মাণে অনিয়মের মামলায় ১৮ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

রাজধানীর বনানীর এফ আর টাওয়ার নির্মাণে ইমারত বিধিমালা লঙ্ঘন এবং নকশা জালিয়াতি মামলায় ১৮ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট দিচ্ছে দুদক। 

মামলার অন্যতম আসামি ইজারাগ্রহীতা ফারুক, রূপায়ন গ্রুপের চেয়ারম্যান লিয়াকত আলী খান মুকুল। তদন্তে রাজউকের ১৫ কর্মকর্তা-কর্মচারীর সংশ্লিষ্টতার প্রমাণ পাওয়া যায়। তবে প্রমাণ না পাওয়ার মামলা থেকে বাদ পড়েছেন সাতজন।

গত বছরের ২৮ মার্চ এফ আর টাওয়ারে ভয়াবহ আগুনের ঘটনায় ১৯ জন মারা যাওয়ার পর বেরিয়ে আসে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য। নকশা না মেনেই তলার পর তলা বাড়ানো হয়েছে ভবনটির। গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের গঠিত তদন্ত কমিটি দায়ী করেন অর্ধশতাধিক ব্যক্তিকে।

এরপর ভবনটি নির্মাণে জড়িত ২১ জনকে আসামি করে হয়ে মামলা করেন দুদকের উপপরিচালক আবু বকর সিদ্দিক। এই মামলায় ভুয়া ছাড়পত্রের মাধ্যমে এফ আর টাওয়ারকে ১৯ থেকে বাড়িয়ে ২৩ তলা করা, ওপরের ফ্লোরগুলো বন্ধক দেওয়া ও বিক্রি করার অভিযোগ আনা হয়। প্রায় এক বছর পর মামলার চার্জশিট দেওয়া হলো।

১৯৯০ সালে ১৫ তলা ভবন নির্মাণের জন্য রাজউকের অনুমোদন পান এস এম এইচ আই ফারুক। ভবন নির্মাণের জন্য জমির মালিক চুক্তিবদ্ধ হন আবাসন প্রতিষ্ঠান রূপায়ন গ্রুপের সঙ্গে। পরে ১৯৯৬ সালে ১৮ তলা ভবন নির্মাণের অনুমোদন চেয়ে সংশোধিত নকশা অনুমোদন চাইলে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের বিধিনিষেধ অনুযায়ী অনুমোদনযোগ্য নয় বলে জানিয়ে দেওয়া হয়। কিন্তু এর এক মাসের মধ্যেই সংশোধিত ও নকশা অনুমোদন করা হয়। রূপায়ন ওই জায়গায় অবৈধ নকশার ভিত্তিতেই ১৮ তলা ভবন নির্মাণ করে। এ কাজে অবৈধ লেনদেন হয়েছে বলে অভিযোগপত্রে বলা হয়েছে।

অভিযোগপত্রে বলা হয়, পার্কিংয়ের জায়গার ক্ষেত্রেও রাখা হয়েছে প্রায় নির্দিষ্ট পরিমাণের এক–তৃতীয়াংশ জায়গা। আবাসিক ভবন হিসেবে অনুমোদন নেওয়া হলেও পুরো ভবনটি ব্যবহার হয়েছে বাণিজ্যিক হিসেবে। ইমারত নির্মাণ বিধিমালা অনুসারে ভবনের দুই পাশে যে পরিমাণ জায়গা রাখার কথা তা–ও রাখা হয়নি। 


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
বাংলা » English